1. info@gaibandhaexpress.news : Farhan :
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন

নড়াইলে আ.লীগের ১৫ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার

তানভীর রহমান
  • Update Time : শুক্রবার, ৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ১১০ Time View

নড়াইল সদর উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হওয়ায় ১৫ জনকে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নড়াইল সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অচীন কুমার চক্রবর্তী। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবাস চন্দ্র বোস ও সাধারণ সম্পাদক মো. নিজাম উদ্দিন খানের স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

অচীন কুমার চক্রবর্তী  বলেন, দলীয় পদে থেকে যাঁরা ইউপি নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন, তাঁদের সবাইকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ ও এর সব সহযোগী সংগঠনের সব ধরনের পদ থেকে তাঁদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দলীয় পদে থেকে যাঁরা নৌকার বিরুদ্ধে অন্য প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন, তাঁদের সর্তক করা হয়েছে।

বহিষ্কার করা ১৫ জন হলেন হবখালী ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. রিয়াজুল ইসলাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মো. শরিফুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, আউড়িয়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য আকরাম হোসেন ভূঁইয়া, শাহাবাদ ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন, শাহাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউর রহমান, তুলারামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মো. টিপু সুলতান, কলোড়া ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা কৃষক লীগের সহসভাপতি আব্বাচ আলী সরদার, সিঙ্গাশোলপুর ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি উজ্জ্বল শেখ, ভদ্রবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মো. নাসির উদ্দিন, আল ইমাম সিকদার, বাঁশগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, সদস্য মো. নাজমুল আলম, বিছালী ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এস এম আনিসুল ইসলাম ও মুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বিপুল কুমার সিকদার।

বহিষ্কার হওয়া দেলোয়ার হোসেন আজ শুক্রবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘স্কুলজীবন থেকে দলের সঙ্গে যুক্ত। দলের পরীক্ষিত সৈনিক আমি। দলকে শ্রদ্ধা করি। বহিষ্কার করেছে, আবার কোলে তুলে নেবে। জনগণের চাপে নির্বাচন করছি। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিজয়ী হব।’

আব্বাচ আলী সরদার বলেন, ‘৩৭ বছর ধরে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং কৃষক লীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছি। দল বহিষ্কার করলেও দলের জন্য কাজ করব। গতবারও স্বতন্ত্র নির্বাচন করে চেয়ারম্যান হয়েছি। এবারও জনগণ আমার পক্ষে রায় দেবে।’

প্রসঙ্গত, ১১ নভেম্বর উপজেলার ১৩ ইউপির ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All Rights Reserved © 2021 Gaibandha Express
Theme Customized BY LatestNews